‘‌সরকার থ্রি’‌র পরেই ‘নিউক্লিয়ার’

রামগোপাল ভার্মা চিত্র পরিচালক। দক্ষিণ ভারতীয় এক ছবির পোস্টারে ১৩ বছরের এক শিশুকে অশ্লীলভাবে ব্যবহারে আপত্তির মুখে পড়েছেন তিনি।

এ নিয়ে তিনি এখন সংবাদের শিরোনামে। রামগোপাল নতুন বোমা ফাটাচ্ছেন রোজই। প্রথম আন্তর্জাতিক কাজে হাতও দিয়েছেন। প্রায় ৩৪০ কোটি টাকা খরচ করে নতুন ছবিতে নামছেন। ছবির নাম নিউক্লিয়ার। ছবিটির খবর ট্যুইট করেছেন স্বয়ং পরিচালকই। ভারত–‌সহ আমেরিকা, চীন ও রাশিয়ার বিভিন্ন স্থানে হবে ছবির শ্যুটিং। কাস্টিং হয়েছে বিদেশি অভিনেতাদের নিয়ে।

কেমন হবে নিউক্লিয়ার এর গল্প। বিশ্ব জুড়ে জঙ্গি হানাই হল এ ছবির মূল লক্ষ্য। সঙ্গে রয়েছে পরমাণু বোমার অপব্যবহার। শক্তিধর দেশগুলির পরমাণু বোমার অপব্যবহারকে সঙ্গী করে এগিয়ে চলবে ছবির প্লট। রামগোপাল নিজেই বললেন, বিশ্বের নানা বিষয় নিয়ে ছবি করেছি। তবে এবারের গল্প একেবারে আলাদা। নতুন এই আঙ্গিক পরিচালককে নানা ভাবে ভাবাচ্ছে। উৎসাহ নিয়ে অদম্য ইচ্ছায় কাজ শুরু করছেন তিনি। তবে খরচ যে অনেক বেশি, তা তিনি স্বীকার করেছেন। এক আন্তর্জাতিক প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন। ৩৪০ কোটি খরচ হলেও, বিশ্বজুড়ে চলবে ছবিটি। তবে বর্তমানে তিনি ব্যস্ত সরকার ‘‌থ্রি’‌–র শ্যুটিং নিয়েই। ২০০৫, ২০০৮ এরপর ২০১৬। সরকার ওয়ান, সরকার টু’‌র পর সরকার থ্রি। অর্থাৎ ছবির তৃতীয় কিস্তি। এই ছবির কাস্টিং নিয়েও মুখ খুললেন তিনি। জানালেন, অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে এখানে থাকছেন জ্যাকি শ্রুফ, মনোজ বাজপেয়ী, ইয়ামি গৌতমরা। অভিষেক–ঐশ্বরিয়া অবশ্য থাকছেন না। আগের দুই কিস্তির থেকে থ্রি হবে অনেক বড় ও তেমনই মজাদার।

২০০৫–‌এ মুক্তিপ্রাপ্ত সরকার বিভিন্ন মহলে প্রশংসা ও পুরস্কার জিতলেও, ২০০৮–‌এ সরকার দ্বিতীয় কিস্তি সমালোচনার ঝড় তোলে। কিন্তু ছবিটি বক্স অফিস হিট করে। সরকার থ্রি–‌র কাজ চলছে যুদ্ধকালীন তৎপরতায়। ২০১৭–র মাঝামাঝি ছবিটি যে মুক্তি পাবে, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। অমিতাভ বচ্চন, জ্যাকি শ্রুফ, রণিত রায়, মনোজ বাজপেয়ী, ইয়ামি গৌতম, অমিত শাঠ, ভারত ধাবালকার, রোহিণী হাতাঙ্গাদি— কে নেই রামগোপালের সরকার থ্রি–‌তে। সবাই অধীর আগ্রহে তাকিয়ে রইলেন ২০১৭–‌এর দিকে। সরকার থ্রি আবার কী বোমা ফাটাবে জনমানসে। ব্লকবাস্টার আবার হবে কি ছবিটি।

ইতিমধ্যেই রামগোপালের ছবি বীরাপ্পন মুক্তি পেয়েছে। চন্দন দস্যু বীরাপ্পনের জীবনের একটা বড় অংশকে তুলে ধরেছেন রামগোপাল। কাছ থেকে দেখেছেন বীরাপ্পনের কার্যকলাপ। জন্মসূত্রে অন্ধের বাসিন্দা রামগোপালের জন্ম হায়দরাবাদে। প্রথম জীবনে ভিডিও দোকানদার আজ এক নামজাদা চিত্রপরিচালক, লেখেন চিত্রনাট্যও। প্রোডিউসার হিসেবেও তাঁর খ্যাতি রয়েছে। সুন্দরী কন্যা রেবতীও রয়েছে রামগোপালের পরিবারে। প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হলেও, রামগোপালের ছবিতে তা দাগ কাটেনি। আট বছর বিরতির পর আবার বিগ বি–‌র সঙ্গে কাজ শুরু করেছেন রামগোপাল। ২০১৭ সরকার কী বার্তা দেয় তা দেখতে মুখিয়ে রয়েছেন সিনেমাপ্রেমীরা।
৩৪০ কোটির নিউক্লিয়ার–‌এ আমরা কী গল্প পাব। আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ ও পরমাণু বোমার অপব্যবহার নাড়া দিয়েছে রামগোপালের মনে। প্রথম বিশ্বযুদ্ধ ও দ্বিতীয় বিশ্বযু্দ্ধের ছায়া আজও আমাদের মনে ম্লান হয়নি। হিরোসিমা–‌নাগাসাকির ছবি বয়সে পুরানো হলেও, আজও টাটকা রয়েছে।

এত সহজে মুছবে না সেই ছবি। আর আজ যদি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ আমাদের উঠানে এসে দাঁড়ায়, ছবিটা কেমন হবে। যুদ্ধ–‌যু্দ্ধ খেলা আমরা দেখছি রোজই। সকলেই পেশি উঁচিয়ে অপর দেশকে হুঙ্কার দিচ্ছে পরমাণু বোমার। হিসাব রাখছে সকলেই, প্রতিবেশী দেশের কাছে আছে কতগুলি পরমাণবিক বোমা। বিশ্বের কোনও এক নগরে এ বোমা বর্ষণ হলে ছবিটা কেমন হবে তা এঁকেছেন অনেকেই। তবে কি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের স্কেচ এঁকে রামগোপাল তৈরি করছেন এ ছবি। সে কথা পরিচালকই জানেন। আমরা শুধু অনুমান করি মাত্র।

৩৪০ কোটি নিয়ে চিন্তিত নন রামগোপাল। এটি তার প্রথম আন্তর্জাতিক কাজ। আন্তর্জাতিক প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে তিনি হাতও মিলিয়েছেন। ছবি হিট করলে টাকা যে আসবে, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে রামগোপালের ‘‌নিউক্লিয়ার’‌ বক্স অফিস কতটা হিট করবে, পরমাণু বোমার ধোঁয়া বিশ্বের কতটা অংশে ধাক্কা দেবে, তা সাক্ষাতের জন্য আমাদের অপেক্ষা করতেই হবে। রামগোপাল এখন ব্যস্ত সরকার ‘‌থ্রি’‌ নিয়ে। তবে ৩৪০ কোটির নিউক্লিয়ার এর চিত্রপট আঁকা শুরু হয়ে গেছে। প্রস্তুতিও তুঙ্গে রয়েছে।

যুদ্ধ নয় শান্তি চাই। বিগত দশকে এ নিয়ে মিছিল-মিটিং ছিল। এ দশকে এ রকম স্লোগান খুব একটা শোনা যায় না। বরং সন্ত্রাসবাদের জবাব দিতে পাকিস্তানে ঢুকে আমাদের সেনারা সার্জিক্যাল অপারেশনের সাফল্য অর্জন করে। সেই সাফল্যে ভারতবাসীর গর্বে বুক ফুলেছে। যুদ্ধ যদি নেমেও আসে, তাতে আমরা বোধহয় গর্ববোধই করব। কিন্তু তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ, পরমানু বোমা, সন্ত্রাসবাদ কিন্তু সমস্ত বিশ্বকে ভাবাচ্ছে। ঠিক এ রকম যুগ–‌সন্ধিক্ষণে রামগোপালের ‘‌নিউক্লিয়ার’‌ আমাদের নতুন দিশা দেখাবে কি। অবশ্য গল্প নিয়ে যত না চর্চা, তার থেকে অনেক বেশি চর্চা চলছে ৩৪০ কোটির বাজেট নিয়ে। এত বড় বাজেটের ছবি খুব একটা দেখা যায়নি আমাদের দেশে। এখন অপেক্ষা, ৩৪০ কোটির নিউক্লিয়ার কি বার্তা দেবে বিশ্ববাসীকে। রামগোপাল ভার্মা ছাড়া সে খবর আর কে দেবে দেশবাসীকে। ‌

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s