অপু নাটকের শেষ কোথায়?

চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস আড়াল হওয়ার পর থেকেই শুরু হয়েছে নতুন নাটকের। যা ক্রমেই ঘোলাটে করছে পরিবেশ।

এর আগে বেশ কয়েকবার ফিল্মপাড়ার আকাশে ভেসে বেড়িয়েছে শাকিব-অপুর প্রেমের গুঞ্জন।

এবার অপু আড়াল হওয়ার পর এ জুটি বিয়ে করেছেন বলেও খবর প্রকাশ হয়েছে নানা মাধ্যমে।

বিষয়টি নিয়েই এখন মুখরোচক গল্প রটছে নিত্য। তারা নাকি লুকিয়ে বিয়ে করেছেন। কেউ বলছেন বিয়েটা বছর দুয়েক আগে হয়েছে, আবার কেউ বলছেন বিয়ে হয়েছে ২০০৮ সালে।

কেউ আবার অপু নাকি শাকিব খানের সন্তানের মা হয়েছেন এমন কথাও বলে বেড়াচ্ছেন ইন্ডাস্ট্রিতে। আরও অনেক কিছুই ছড়াচ্ছে এ জুটিকে নিয়ে।

এসব গুজবের ডালপালা মেলার কারণ হচ্ছে চলতি বছরে অপুর আড়াল হওয়া। নিরুদ্দেশ হওয়ার পর কারও কাছেই কোনো খোঁজ ছিল না অপুর।

হঠাৎ করেই অজ্ঞাত এক সূত্র থেকে খবর ছড়িয়ে পড়ে ভারতের শিলিগুড়িতে অবস্থান করেছেন এ নায়িকা। সেখানে নাকি শাকিব খানের তত্ত্বাবধানেই একটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন তিনি।

এ খবরের কিছুদিন পর আবার ওঠে নতুন খবর। এবারের খবর একটু চমক জাগানোই। শিলিগুড়ির ওই হাসপাতালে অপু নাকি সন্তানও জন্ম দিয়েছেন। আর সেই সন্তানের পিতা শাকিব!

কোনো প্রকার প্রমাণ ছাড়াই এমন খবর প্রকাশ করেছে দেশের অনেক গণমাধ্যম। যার প্রমাণ মেলেনি আজও।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে শাকিব খানকে প্রশ্ন করা হলেও বিষয়টি বারবার এড়িয়ে গেছেন তিনি।

কিছুদিন আগে আবার খবর রটে নতুন বছরের জানুয়ারির শেষদিকে দেশে ফিরছেন অপু। তার গ্রামের বাড়ি বগুড়ার একাধিক ঘনিষ্ঠজনের বরাতে এমন খবর দিয়েছেন বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম। এ খবরটিও এক প্রকার আন্দাজে ঢিল নিক্ষেপের মতোই।

১৪ ডিসেম্বর অপু বিশ্বাস শাকিব খানকে নয় এক ভক্তকে বিয়ে করছেন ফেসবুকে খবর উঠে আসে। কিন্তু শেষ অব্দি খবরটি আর সত্যতা মিলেনি।

এদিকে অপু বিশ্বাসের নিরুদ্দেশ থাকায় বেশ কয়েকটি ছবির শুটিং শুরু করার পরই বন্ধ হয়ে পড়েছে। ফলে সিনেমা প্রযোজকদের লাখ লাখ টাকা লস গুনতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপই নিচ্ছে না শিল্প সমিতি প্রযোজক সমিতি বা পরিচালক সমিতি নামের এসব সংগঠন। প্রশ্ন করলেই সবাই দায়সাড়া ভাব করে এড়িয়ে যাচ্ছেন।

কিছুদিন আগে ছবি আটকে থাকা পরিচালকরা অপু বিশ্বাসের নামে মামলা করার ঘোষণা দিলেও এ পথেও এগোয়নি কেউ। এর পেছনে কারও হাত রয়েছে কিনা সে বিষয়েও সন্দেহ দানা বাঁধছে।

অনেকে বলছেন, আইনি আশ্রয়ে গেলেই খোঁজ মিলবে এ নায়িকার। কিন্তু বিড়ালের গলায় ঘণ্টা বাঁধবে কে? ঝামেলা মাথায় নিতে চাচ্ছেন না কেউ। তাই অপু নাটকীয়তার শেষও হচ্ছে না। অথচ মামলা করলে আইনিভাবেই অপুকে খুঁজে বের করা সহজ হতো।

চুক্তিভঙ্গের কারণে আদালতের শরণাপন্ন হলে আদালত অপু বিশ্বাসের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করলেই নির্ঘাত অপু হাজির হয়ে যাবে। অন্যথায় আইনশৃংখলা বাহিনীই তাকে খুঁজে বের করবেন। তাহলেই অবসান হবে অপু নাটকীয়তার- এমনটাও বিশ্বাস করেন অনেকে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s