সিডির বিকল্প এখনও কিছু ভাবতে পারি না: ন্যান্সি

ভেতর বলে দূরে থাকুক বাহির বলে আসুক না- এ গানই ন্যান্সিকে শ্রোতার হৃদয়ে আসন গেড়ে দিয়েছে। জন্মসূত্রে যশোরের মেয়ে হলেও বেড়ে উঠেছেন নেত্রকোনায়। পুরো নাম নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। মা জ্যোৎস্না হক ছিলেন শখের শিল্পী। মায়ের কাছে ন্যান্সির গানের হাতেখড়ি। অডিওর পাশাপাশি প্লেব্যাকেও পেয়েছেন জনপ্রিয়তা। সমসাময়িক সঙ্গীতের নানা প্রসঙ্গ নিয়ে এক আড্ডায় ভাগাভাগি করে নিয়েছেন নিজের অভিজ্ঞতা।

কখন থেকে গানের প্রতি আকৃষ্ট হলেন?

ছোটবেলা থেকে কখনই আমার গানের প্রতি ভালোলাগা কিংবা ঝোঁক কোনোটিই ছিল না। একরকম জোর করেই মা আমাকে দিয়ে রেওয়াজ করাতেন। বড় হওয়ার পর কখন যে গানের প্রতি প্রেম জন্মায় সেটি নিজেও বলতে পারব না।

আজকের ন্যান্সি হয়ে ওঠার পেছনে কার অবদান সবচেয়ে বেশি?

শিল্পী ন্যান্সি হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান আমার মায়ের। সব সময় সবকিছুতে ছায়ার মতো থাকেন। আর বাবা যা করেছেন তা ছিল নীরবে। সবসময় আড়ালে থাকতেন তিনি। কখনও আমার কোনো কিছুতেই বেশি আগ্রহ দেখাতেন না। মাঝে মাঝে খারাপ লাগত। কিন্তু বাবার প্রতি এমন ধারণা ভেঙে যায়, যখন দেখি আমাকে নিয়ে যত নিউজ হয়েছে, সব পেপার কাটিংগুলো তিনি সযত্নে রেখে দিয়েছেন।

পহেলা বৈশাখে নতুন অ্যালবাম প্রকাশ করবেন বলে জানিয়েছেন…

তিনটি গান নিয়ে শুনতে চাই তোমায় শিরোনামে একটি একক অ্যালবাম প্রকাশ করব। মূলত বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে প্রকাশ করছি। এটি আমার পঞ্চম একক অ্যালবাম। অনলাইন এবং সিডি দুই মাধ্যমেই প্রকাশ পাবে নতুন অ্যালবামটি।

গানগুলো কার লেখা কিংবা সুর সঙ্গীত কারা করেছেন?

অ্যালবামে তিনটি গান থাকছে। গানগুলো লিখেছেন জাহিদ আকবর। সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন ইমন চৌধুরী।

বর্তমানে সবাই অনলাইনে গান প্রকাশ করছেন। কিন্তু আপনি অনলাইনের পাশাপাশি সিডি আকারেও প্রকাশ করছেন, কারণ কী?

আমি সবসময় সিডি আকারেই গান প্রকাশে আগ্রহী। সিডির বিকল্প এখনও কিছু ভাবতে পারি না। আমার কাছে গান শোনা মানে সিডি প্লেয়ারেই শুনতে হবে। তাই সিডির ব্যাপারে আমার আগ্রহ একটু বেশি।

তাহলে কি পরবর্তীতে যত অ্যালবাম প্রকাশ করবেন সেগুলো সিডি আকারেই পাবেন শ্রোতারা?

এটা শুধু আমার ওপর নির্ভর করে না। মার্কেটের অবস্থা বুঝে কাজ করতে হয়। কোম্পানি যেটা ভালো মনে করবে সেটাই করবে। সবচেয়ে বড় কথা, সবাই ব্যবসা করতে এসেছেন। এখন দেখতে হবে তারা আমার ওপর কতটা আস্থা রাখতে পারেন। পুরো বিষয়টি নির্ভর করছে প্রেক্ষাপটের ওপর।

এ অ্যালবামের কোনো গানের মিউজিক ভিডিও করার পরিকল্পনা আছে?

আমি মিউজিক ভিডিও করার ব্যাপারে একদমই আগ্রহী নয়। তাই নতুন গান নিয়ে এখনও কোনো মিউজিক ভিডিওর পরিকল্পনা করিনি।

এখন তো অনেকেই ভিডিও নির্মাণে আগ্রহী। আপনি এর বিপক্ষে?

আমার কাছে মনে হয় একজন শিল্পীর কাজ কণ্ঠের। শিল্পীদের সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেয়া উচিত তাদের কণ্ঠে। ভিডিওতে মনোযোগ দেয়া কোনোভাবেই জরুরি নয়। গান গাইলে শ্রোতারা অডিও শুনবেন না, কিন্তু ভিডিও দেখলে শুনবেন, এটা আমি বিশ্বাস করি না। এখন যেহেতু তথ্যপ্রযুক্তির উন্নতি হয়েছে, শ্রোতারা গানের পাশাপাশি ভিডিও দেখতে চান সে কথা মাথায় রেখে মিউজিক ভিডিও তৈরি করা যায়। এটাকে খারাপ বলছি না।

একটি গান শ্রোতাপ্রিয় হওয়ার জন্য সেটার কথা কতটা গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন?

কথা-সুর-গায়কী কোনোটিই ফেলে দেয়ার মতো নয়। যদি একটি গানের কথা খুব সুন্দর হয়, কিন্তু আবেদন দিয়ে গাইতে পারলেন না শিল্পী, আবার দুটিই ঠিক হল কিন্তু সুর গানটাকে প্রাণ দিতে পারল না, তাহলেও গানটা ভালো হবে না। তাই আমার কাছে মনে হয় একটি আরেকটির পরিপূরক। কোনোটিকেই বাদ দেয়া যাবে না।

স্টেজ শো’র কী অবস্থা?

প্রতি সপ্তাহে একটি করে স্টেজ শো করি। তাতেই আমার কাছে বেশি মনে হয়। তাই সবকিছুই নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখি।

সব শিল্পীই দেশের বাইরে শো করতে যান। কিন্তু আপনাকে সেভাবে দেখা যায় না, কারণ কী?

দেশের বাইরে শো করতে যেতে আগ্রহী নই আমি। ৫-৬ বার দেশের বাইরে শো করার অভিজ্ঞতা হয়েছে। যেটি খুব বেশি সুখকর নয়। বাইরে আয়োজক যারা থাকেন, তারা দেশের আয়োজকদের মতো লেনদেনে ততটা স্বচ্ছ নন। আমি স্পষ্ট কথা বলি, এ জন্য অনেকেরই অপছন্দ।

সিনেমার গানেও নিয়মিত নন। কারণ কী?

সিনেমার গান কমিয়ে দেইনি। বর্তমানে ফিল্মে যারা লগ্নি করছেন, সবার ঝোঁক এখন কলকাতার দিকে। যখন তারা কলকাতামুখী হচ্ছেন, তারা চিন্তা করেন, কেন একজন দেশি শিল্পীকে ৪০-৫০ হাজার টাকা দিয়ে গান করাব। যেখানে কলকাতার একজন শিল্পী দিয়ে গান করানো যাচ্ছে একই পারিশ্রমিক দিয়ে। তা ছাড়া দেশে হাতেগোনা কয়েকজনকে দিয়ে তারা গান করান।

সঙ্গীত জীবনের বড় প্রাপ্তি কী?

সঙ্গীত ক্যারিয়ারে অনেক কিছু পেয়েছি। আবার অনেক কিছু হারিয়েছি। তবে খুব কম বয়সে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছি। এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কিছু হতে পারে না।

আগামীর পরিকল্পনা কী?

প্ল্যান করে কিছু করি না। আজ প্ল্যান করব কাল সেটা কার্যকর করতে না পারলে আপনারাই বলবেন, কই অনেক কিছুই পরিকল্পনা করেছেন, কিন্তু ফলাফল নেই। তাছাড়া আমার পরিকল্পনা করে কিছু হয়ও না।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s