Tag Archives: bollywood news

রণবীর সিংই দেশের পরবর্তী সুপারস্টার: রোহিত শেট্টি

সাফল্যের একের পর এক ধাপ পেরিয়ে চলেছেন রণবীর সিং। সঞ্জয়লীলা বনশালির পদ্মাবতীর শুটিং এখনও শেষ করে উঠতে পারেননি। এর মধ্যেই আরও এক ব্লকবাস্টার পরিচালকের সঙ্গে জুটি বেঁধে ফেললেন বলিউডের বাজিরাও। এবার নায়ককে দেখা যাবে রোহিত শেট্টির নয়া অ্যাকশন ফ্লিকে। ছবির নাম এখনও ঠিক হয়নি। ঠিক হয়নি নায়িকাও। কিন্তু রণবীর সিংই যে তাঁর নায়ক সে কথা সগর্বে ঘোষণা করে দিয়েছেন রোহিত। পরিচালকের মতে, রণবীরই ভবিষ্যতের সুপারস্টার।

আপাতত রিয়ালিটি শো খতরোঁ কে খিলাড়ির অষ্টম মরশুম নিয়ে ব্যস্ত পরিচালক। সেখানে সঞ্চালনার দায়িত্বে ফিরেছেন তিনি। তারই এক সাংবাদিক বৈঠকে রণবীর প্রসঙ্গ ওঠে। সেখানেই বাজিরাও-য়ের প্রশংসা শোনা যায় রোহিতের মুখে। রণবীরের কোন বিষয়টি তাঁর সবচেয়ে বেশি ভাল লাগে? এই প্রশ্নের উত্তরে পরিচালক বলেন, রণবীরের প্রাণশক্তি অফুরন্ত। সব সময় প্রবল এনার্জি থাকে তাঁর মধ্যে। আর এই জন্যই তাঁর জনপ্রিয়তা দিনের পর দিন বেড়ে চলেছে। রণবীরই বলিউডের পরবর্তী সুপারস্টার বলে ঘোষণা করেন পরিচালক।

জানান, আগামী ছবি নিয়ে নায়কের সঙ্গে কথাবার্তা অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে। সব ঠিক থাকলে এই দিওয়ালির পরই শুরু হয়ে যাবে ছবির শুটিং। ছবিতে রণবীরকে নাকি প্রচুর স্টান্ট করতে দেখা যাবে। এমন স্টান্ট তাঁকে আগে করতে দেখা যায়নি। তবে রণবীরের নায়িকাকে এখনও পর্যন্ত খুজে বের করতে পারেননি পরিচালক। নতুন কাউকে নেবেন, নাকি পুরনো কারও উপর ভরসা রাখবেন, সে বিষয়ে এখনও দ্বিধা রয়েছে তাঁর মনে।

বাহুবলীকে হারিয়ে দিতে আসছে তানাজি

আসছে তানাজি। বুধবার প্রকাশিত হয়েছে ছবির প্রথম পোস্টার। আর প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে টুইটারে তাকে লক্ষ করে ভেসে এসেছে প্রবল উচ্ছ্বাস ও উদ্দীপনা। মারাঠি ইতিহাসের উজ্জ্বল নাম তানাজি মালুসারে। প্রায় সাড়ে তিনশো বছর আগে সিনহাগাদের যুদ্ধে তাঁর প্রবল বিক্রম আজও কিংবদন্তি হয়ে আছে। সেই বীর যোদ্ধাকে এ বার রুপোলি পর্দায় নিয়ে আসছেন অজয় দেবগণ। ছবির পোস্টারে দেখা যাচ্ছে একটি ঢালের সাহায্যে আত্মরক্ষা করছেন তানাজি-বেশী অজয়। তাঁর ঢালে এসে ঠিকরে যাচ্ছে অসংখ্য তির।

একে কিংবদন্তি তানাজি, তায় অজয়ের মতো জনপ্রিয় অভিনেতা। দুয়ে মিলে তৈরি হয়েছে তুমুল উচ্চাশা। টুইটারে সুপার্ব, ইনটেন্স ইত্যাদি প্রতিক্রিয়া দিয়েছে সকলে। তবে সেরা কমেন্টটি নিঃসন্দেহে করেছেন একজন। যিনি বলেছেন, বাহুবলী কে? আমি কেবল তানাজিকে চিনি।

প্রসঙ্গত, বাহুবলীর তুমুল সাফল্যের পরে রাজারাজরা, তরবারি, ধনুক, তিরের আকর্ষণ বেড়ে গিয়েছে দর্শকদের কাছে। তবে বাহুবলী নিছকই কাল্পনিক চরিত্র। সেই জায়গায় তানাজি কিন্তু ঐতিহাসিক চরিত্র। তাই তাঁর আবেদন এক অন্য মাত্রায় দর্শকদের কাছে পৌঁছবে এ কথা বলাই যায়।

তবে বাহুবলী-এর দুটি ছবি যে ইতিহাস রচনা করেছে তাকে ছোঁয়া মোটেই সহজ হবে না কোনও ছবির পক্ষেই। কিন্তু সব সময়ই সর্বোচ্চ পর্যায়ের কাজকে যে মাথায় রেখে স্বপ্ন রচিত হবে, সেও তো জানা কথাই। তাই দর্শকরা আশা করতেই পারেন, এই ছবি নতুন কোনও কীর্তি রচনা করবে। তানাজি সে আশা পূরণ করতে পারবে কি না, সেটা জানতে অবশ্য লম্বা অপেক্ষা করতে হবে। ওম রাউতের পরিচালনায় এই ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা ২০১৯ সালে।

এখনই মা হতে চাই : সানি লিওন

ভারতের এক জনপ্রিয় ইংরেজি দৈনিক আয়োজিত ফেসবুক লাইভে নিজের সম্পর্ক এবং পরিবার নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করলেন বলিউড ডিভা সানি লিওন।

সানি লিওন জানালেন, যদি জীবনে কখনও সন্তানলাভের সৌভাগ্য অর্জন করি ভগবানের কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকব আমি। স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবারের সঙ্গে নিজের পরিবার চান, একথাও পরিষ্কার জানিয়েছেন এই বলি ডিভা।

পরিবার পরিকল্পনা নিয়ে প্রশ্ন করলে সানি জানান, আমি ব্যক্তিগতভাবে এখনই মা হতে চাই। কিন্তু আমি এখনও এমন কোনও সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছি না।

শিশুদের প্রতি নিজের ভালোবাসার কথা বলতে গিয়ে সানি লিওন নিজের এক অভিজ্ঞতার কথাই তুলে ধরেন। একবার একটা শিশু আমার কোলে এত আদর খেয়েছে যে নিজের মায়ের কাছেই যেতে চাইছিল না। হাসতে হাসতে এই অভিজ্ঞতার কথাই ব্যক্ত করেছেন সানি লিওন।

এরপর সম্পর্ক প্রসঙ্গে সানি নিজের মত জানাতে গিয়ে বলেন, কমিউনিকেশন এবং শ্রদ্ধা, এই দুটি বিষয়ই সম্পর্কে সবথেকে জরুরী। কমিউনিকেশন ছাড়া কখনই ওপর প্রান্তের মানুষটিকে চেনা যায় না। আর শ্রদ্ধা এমন একটি বিষয় যা একটা নির্দিষ্ট সীমারেখা তৈরি করতে শেখায়। কতটা পর্যন্ত বলা উচিত আর কোনটা বলা উচিত নয়, এটাই বুঝিয়ে দেয় পারষ্পরিক শ্রদ্ধা।

নওয়াজউদ্দিনের টুইটে তোলপাড় বলিউড

অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দীকীর এক টুইটেই বলিউডে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

গত ১৭ জুলাই তিনি টুইটারে লেখেন, ‘আমি কালো আর দেখতেও ভাল নই। এজন্য আমি ফর্সা ও সুন্দর কাউকে জুটি হিসেবে পাবো না। সেটা মনে করিয়ে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ! তবে আমি কখনোই এসবে গুরুত্ব দেইনি।’

হঠাৎ তিনি কেনো ফর্সা কালো নিয়ে টু্ইট করতে গেলেন।

আসলে ঘটনার সূত্রপাত তার সাম্প্রতিক ছবি ‘বাবুমশাই বন্দুকবাজ’ ছবির কাস্টিং ডিরেক্টর সঞ্জয় চৌহানের একটি মন্তব্যে।

সঞ্জয় সম্প্রতি বলেছেন, ছবিতে নওয়াজ থাকায় তিনি কোনও ‘ফর্সা’ বা ‘হ্যান্ডসাম’ অভিনেতাকে কাস্ট করতে পারেননি।

নাম ধরে না করলেও নওয়াজের এই টুইট যে সঞ্জয়ের মন্তব্যেরই জবাব, তা স্পষ্ট অনেকের কাছেই।

বলিউডে একস্ট্রা বা জুনিয়র আর্টিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন নওয়াজ। এখন তিনি বলিউডের অন্যতম সফল অভিনেতা।

‘রইস’-এর কড়া পুলিশ অফিসার হোক বা অপ্রতিরুদ্ধ দশরথ মাঝির চরিত্র, সবেতেই দর্শক, সমালোচকদের মন জয় করেছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী।

নওয়াজ জানান, কোনোদিনই তিনি নিজের লুক বা ত্বকের রঙের প্রতি নজর দেননি; বরং গুরুত্ব দিয়েছেন ‘মেথডিক্যাল’ অভিনয়ে।

এর পরেই তার সংযোজন, ‘কিন্তু কোনও কাস্টিং ডিরেক্টর যদি আমার জন্য কোনও ফর্সা বা ‘হ্যান্ডসাম’ অভিনেতাকে কাস্ট করতে না পারেন, তো সেটা তার সমস্যা।’
তবে ওই অভিযোগ ভিত্তিহীন জানিয়ে সঞ্জয় চৌহান বলেন, ‘আমার বক্তব্যকে বিকৃত করা হয়েছে। আমি বলেছিলাম, এই ছবিতে আমার নওয়াজের মতো অভিনেতারই প্রয়োজন। আমি জানি না কোথা থেকে এই ‘ফেয়ার অ্যান্ড হ্যান্ডসাম’ কথাটা জুড়ে দেওয়া হল। এ কথা আমি বলিনি।’

‘টাকার জন্য করণ আমাদেরকে ব্যবহার করছেন’

করণ জোহর নাকি তাঁদের ব্যবহার করে টাকা উপার্জন করছেন। সম্প্রতি, পরিচালক-প্র‌যোজক করণ জোহরের বিরুদ্ধে এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন রণবীর কাপুর। করণের বিতর্কিত চ্যাট শো ‘কফি উইথ করণ ‘-এর বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন রণবীর। ফেমাস ইউটিউব চ্যানেল ‘অল ইন্ডিয়া বকচোদ‘-এ গিয়ে একটি সাক্ষাৎকারে গিয়ে কিছু তিক্ত স্ৱীকারোক্তি করেন ‘জগ্গা জাসুস’ অভিনেতা রণবীর কাপুর।

সাফ জানান, তিনি করণের ‘কফি উইথ করণ ‘– শোয়ের বিপক্ষে। রণবীর এও জানান, তিনি এবং আনুশকা শর্মা মিলে করণের এই শো বন্ধ করে দিতে চেয়েছিলেন। সেজন্য আনুশকা গোটা বলিউড ইন্ডাস্ট্রিকেই পাশে পাওয়ার চেষ্টাও করেছিল।

রণবীর বলেন, কফি উইথ করণ নিয়ে সমস্য হলো এখানে ‌যখন আমরা কথা বলি তখন খুব সহজ, সাদা সিধা ভাবেই কথা বলি, কারণ আমরা করণকে সবাই চিনি। তবে তখন আর এটা খেয়াল থাকে না ‌যে এটা কোটি কোটি লোক শুনছেন। ‌যাঁরা আপনার প্রত্যেকটা কথা সিরিয়াসলি নিতে পারেন। তাই করণের এই শো নিয়ে আমি আতঙ্কিত।

রণবীরের দাবি, এবছর করণের ‘কফি উইথ করণ ‘ -শোতে আমাকে প্রায় জবরদস্তি নিয়ে ‌যাওয়া হয়েছিল। আমি ‌যেতে চাই নি। আর এই শো-তে ‌যা হয় তা খুবই অনুচিত। আমাদের মতো বলিউড তারকাদের ব্যবহার করা হয় মাত্র।

প্রসঙ্গত, এবছর  ‘কফি উইথ করণ ‘-এ দীপিকার প্রাক্তন ও বর্তমান বয়ফ্রেন্ডকে একসঙ্গে এনেছিলেন করণ। ‌যা তাঁদের কাছে খুবই অস্ৱস্তিকর ছিল। এর আগেও করণ একইসঙ্গে রণবীরের সঙ্গে দীপিকা ও সোনম তাঁর দুই প্রাক্তন ও বর্তমান গার্লফ্রেন্ডকে একসঙ্গে বসিয়েছিলেন। ‌যা নিয়েও খুব বিতর্ক তৈরি হয়েছিল এবং এই কারণে ব্যক্তিগত জীবনে ভীষণই সমস্যায় পড়কে হয় রণবীরকে।

করণের বিরুদ্ধে রণবীরের এই বিস্ফোরক মন্তব্য নিয়ে ‌যে বলিউড সরগরম হবে তা বলাই বাহুল্য।

বয়সে ছোট প্রেমিক পছন্দ ঐশ্বরিয়ার!

বয়সে অনেক ছোট একজনের সঙ্গে প্রেম করবেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন! বয়সে ছোট প্রেমিকই নাকি পছন্দ রাইসুন্দরীর।

তবে এটি বাস্তবে নয়; ‘ফান্নে খাঁ’ ছবিতে এমন ভূমিকায় দেখা যাবে এই তাকে।

সর্বশেষ ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতে ঐশ্বর্যকে দেখা গিয়েছিল রণবীর কাপুরের বিপরীতে। এ রকম এক ব্যতিক্রমী জুটিকে নিয়ে তখন যথেষ্ট শোরগোলও ছিল।

কিন্তু বড়পর্দায় তাদের কেমিস্ট্রি ছিল চোখে পড়ার মতো।

আবারও বলিউড পেতে চলেছে এমন এক ব্যতিক্রমী জুটিকে।

যদিও এখন পর্যন্ত ঠিক হয়নি কে থাকছেন ঐশ্বর্যের বিপরীতে। রাজকুমার রাও না ভিকি কৌশল- এখন এ নিয়েই চলছে জল্পনা।

আগস্ট মাসে শুরু হবে ‘ফান্নে খাঁ’র শ্যূটিং।

কঙ্গনার কাছে ক্ষমা চাইলেন বরুণ ধাওয়ান

স্বজনপোষণ বিতর্কে আইফার মঞ্চে কঙ্গনাকে আক্রমণের জন্য ক্ষমা চাইলেন বরুণ ধাওয়ান। ট্যুইট করে এদিন ট্যুইট করে ক্ষমা চেয়ে নেন বরুণ। বলেন,‘আমি ‌যদি কাউকে আঘাত করে থাকি তাহলে আমি ক্ষমা চাইছি এবং আমার অনুশোচনা হচ্ছে এধরণের কাজের জন্য। ’

প্রসঙ্গত, স্বজনপোষণ বিতর্ক বলিউডে এই মহূর্তে মাথাচাড়া  দিয়ে উঠেছে। প্রথমে করণ জোহরের শো ‘কফি উইথ করণ’এ গিয়ে সরাসরি বলিউডে স্বজনপোষণ (nepotism )-এর অভি‌যোগ তুলেছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। করণ জোহরকে সরাসরি বলেছিলেন, বলিউড স্বজপোষণের ধারক ও বাহক ও আপনি পালক।

আর এবারের আইফার মঞ্চে কঙ্গনার বিরুদ্ধে সেই ক্ষোভই উগরে দিয়েছেন করণ। ‌যার সঙ্গী হয়েছে সাইফ আলি খান ও উঠতি নায়ক বরুণ ধাওয়ান।

প্রসঙ্গত, শুরুটা করেন সাইফই, আইফার মঞ্চে বরুণ ধাওয়ান ‌যখন তাঁর  ‘ঢিসুম’ ফিল্মের জন্য সেরা কমিক চরিত্রে পুরস্কার পান তখন সাইফ বলেন,  ‘তুমি এখানে এসেছ তোমার চিত্র পরিচালক বাবা ডেভিড ধাওয়ানের জন্য। ‘সঙ্গে সঙ্গেই বরুনই সাইফকে উত্তর দেন,  ‘তুমিও এখানে এসেছ তোমার মা শর্মিলা ঠাকুরের জন্য। ‘এই কথপোকথনের মাঝে ঢুকেন করণ জোহরও। তিনি বলেন  ‘হ্যাঁ আমিও এখানে এসেছি আমার বাবা জশ জোহরের জন্য ‘। এরপরই তিন জন বলে ওঠেন ‘নেপোটিজম রকস’।

আর এরপরই ট্যুইটারে ও অন্যান্য সোশ্যাল সাইটে নেটিজেনদের  সমালোচনার মুখে পড়েন করণ জোহর, সাইফ আলি খান ও বরুণ ধাওয়ান। ‌আর তারপরই বরুণ ক্ষমা চেয়ে নিলেন। ‌যদিও করণ ও সাইফ অবশ্য নেটিজেনদের এই সমালোচনাকে পাত্তাই দেননি।

গেইলের সেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করলেন সানি লিওন

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ফেরিওয়ালা খ্যাত ক্রিস গেইলের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করলেন বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওন। সাবেক এই পর্নো তারকা জানিয়ে দিলেন, তিনি গেইলের চ্যালেঞ্জ সামলাতে প্রস্তুত আছেন। কী সেই গেইলের চ্যালেঞ্জ? কিছু দিন আগে ক্রিস গেইল সোশ্যাল মিডিয়া ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন তাঁর নাচের ভিডিও। সঙ্গে নারীদের চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ক্যারিবিয়ান তারকা বলেছিলেন, তাঁর মতো নাচতে পারলে সেরা পাঁচটি ভিডিও তিনি তাঁর প্রোফাইলে শেয়ার করবেন। তারপর সেখান থেকে ভিউয়াররা বেছে নেবেন সেরা ডান্সার।

গেইলের সেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছেন খোদ সানি। আসলে গেইল যে গানের সঙ্গে নেচেছিলেন তা তো তাঁর খুব চেনা। রইস-এর লায়লা ম্যায় লায়লা নিশ্চয়ই মনে আছে সবার। পুরনো কুরবানি ছবিতে জিনাত আমনের নাচও তুমুল জনপ্রিয় হয়েছিল। কিন্তু এই রিমিক্স লায়লা হিসেবে সানিও কম জনপ্রিয়তা কুড়াননি। সেই গানেই মজেছেন গেইলও। অনেকটা সানির কায়দাতেই কোমর দুলিয়ে নেচেছেন তিনি। আর তার পরই সেই নাচের ভিডিও পোস্ট করে ছুড়ে দিলেন চ্যালেঞ্জ সাবেক এই পর্নোস্টার।

গত ১৮ জুলাই সানি টুইট করে জানান, তিনিও এই ডান্স চ্যালেঞ্জে অংশ নিতে চান। সঙ্গে পাঠিয়ে দেন হাসিমুখি ইমেজ। পরদিন গতকাল সানির সেই টুইটের জবাব দেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দানব। জানিয়েছেন, আমি এইমাত্র দেখলাম। তুমি মুভগুলো একদম ঠিক ধরেছ। উত্তরে সানির জবাব, ধন্যবাদ। তুমিও খুব একটা মন্দ নয়!

বাহুবলী ২ এর শেষ অংশ প্রথমে চালিয়ে দিল সিনেমা হল!

এই দিনটার জন্য দুই বছর ধরে অপেক্ষা করেছেন মানুষ। মনে প্রশ্ন একটাই। বাহুবলীকে কেন মারলেন কাটাপ্পা? কিন্তু এই প্রশ্নের উত্তর যখন পেতে চলেছেন ঠিক তখনই গোলমাল হয়ে গেল সব কিছু। সিনেমা রিলিজের আগেই অগ্রিম বুকিং করে টিকিট কেটেছিলেন তাঁরা। কিন্তু সিনেমা হলে গিয়ে নাকের বদলে জুটল নরুন। প্রথম সপ্তাহেই বাহুবলী ২ দেখার জন্য নাইট শোতে বুক করেছিলেন টিকিট। কিন্তু হল কর্তৃপক্ষের ভুলে উৎসাহটাই মাঠে মারা গেল। প্রথম অংশের বদলে চালিয়ে দেওয়া হলো দ্বিতীয় অংশ। আর মাঝখান থেকেই সিনেমা দেখতে বাধ্য হলেন দর্শকরা। পরে ভুল বুঝতে পারায় ফের প্রথম থেকে সিনেমা চালানোর সিদ্ধান্ত নেন হল কর্তৃপক্ষ। তবে ততক্ষণে সমস্ত উৎসাহে ভাটা পড়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বেঙ্গালুরুর এরিনা মলের পিভিআর সিনেমা হলে। শুক্রবার পূর্ণ প্রেক্ষাগৃহে নির্দিষ্ট সময়েই শুরু হয়েছিল বাহুবলী ২ : দ্য কনক্লুশন। দর্শকরাও প্রবল আগ্রহে সিনেমা দেখতে শুরু করেন। কিন্তু তাঁরা বুঝতেও পারেননি যা চলছে তা আসলে সিনেমার শেষাংশ। ছবির এক্কেবারে শেষে, ক্লাইম্যাক্সে পৌঁছে তাঁদের ভুল ভাঙে। টনক নড়ে হল কর্তৃপক্ষেরও। এরপরই হলের বাইরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন দর্শকরা। দর্শকদের দাবি মেনে আবার প্রথম থেকে ছবি দেখানোর সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। ততক্ষণে হল কর্তৃপক্ষকে তুলোধনা করে টুইটারে একের পর এক ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন দর্শকরা।

বাহুবলির প্রশংসায় বিতর্কে রামগোপাল

বহুল প্রতীক্ষিত দক্ষিণী সিনেমা ‘বাহুবলি টু’ নিয়ে মন্তব্য করে নতুন বিতর্কে জড়ালেন বলিউডের পরিচালক রামগোপাল ভার্মা।

অ্যাকশন এবং থ্রিলার সিনেমা বানিয়ে সুনাম কুড়ানো এই পরিচালক সম্প্রতি বাহুবলির লাস্ট সিক্যুয়াল নিয়ে প্রশংসা করে এক টুইট করেন। আর তা নিয়েই বাধে যত বিপত্তি।

অভিযোগ উঠেছে, ওই টুইট বার্তায় তিনি অন্য পরিচালকদের ছোট করেছেন।

টুইট বার্তায় ভার্মা বলেন, ‘যখন হাতির মতো সিনেমা আসে তখন চিত্রপরিচালক কুকুররা ঘেউ ঘেউ করে। কিন্তু ডায়নোসরের মতো যখন ‘বাহুবলি টু’ সিনেমা আসে তখন কুকুর, বাঘ এবং সিংহরা লুকিয়ে পড়ে।’

এরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে শুরু হয়ে যায় আলোচনা-সমালোচনা।

শুক্রবার ভারতসহ বিশ্বের কয়েকটি দেশে মুক্তি পেয়েছে চলতি বছরের অন্যতম প্রতীক্ষিত এই সিনেমাটি।

সিনেমাটিকে ঘিরে দর্শকের উন্মাদনার শেষ নেই। বাহুবলি-দ্য বিগিনিং সিনেমায়, কাটাপ্পা কেন বাহুবলিকে হত্যা করেছিলেন তার উত্তর জানতে কৌতূহলী দর্শক।

দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কিনছেন তারা। এ ছাড়া দর্শকের চাপ দেখে অতিরিক্ত শো প্রদর্শনের ব্যবস্থাও রেখেছেন সিনেমা হল কর্তৃপক্ষরা।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার প্রাপ্তিতে হতভম্ব অক্ষয়-সোনম

দুই দশকের বছরের বেশি বলিউডে কাটিয়ে দিয়েছেন। বক্স অফিসে রয়েছে একের পর এক সুপার ডুপার হিট ছবি। তাঁর অভিনয় ক্ষমতা নিয়েও প্রশ্নের অবকাশ নেই। কিন্তু দীর্ঘ কেরিয়ারে এই প্রথম জাতীয় পুরস্কার জিতলেন অক্ষয় কুমার।

দঙ্গলের মত মেগাহিট ছবির বাজারেও অক্ষয়ের রুস্তমকে আলাদা করে চোখে পড়েছে বিচারকদের, তাঁকে সেরা নায়কের পুরস্কারে সম্মানিত করেছেন তাঁরা। একইভাবে জুরিরা বিশেষভাবে উল্লেখ করেছেন সোনম কাপূরের নাম, তাঁর নীরজা ছবির জন্য। নীরজা সেরা হিন্দি ছবির পুরস্কার পেয়েছে।

বাংলা ছবির প্রযোজনায় প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। শুধু বলিউড নয়, হলিউডে সুনাম অর্জন করেছেন তিনি। এমনকি প্রযোজক হিসেবেও সফল তিনি। এই নায়িকার প্রযোজনায় মারাঠি ‘ভেন্টিলেটর’ এ বছর তিনটি বিভাগে জিতে নিয়েছে ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

তবে চমকপ্রদ ব্যাপার হলো, নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান পার্পেল পেবল পিকচার্স প্রযোজনা সংস্থা থেকে দু’টি বাংলা ছবি নির্মাণ করবেন তিনি। ইতিমধ্যে ছবি দু’টির নাম ঠিক করেছেন প্রিয়াঙ্কা ও তার মা মধু চোপড়া। একটির নাম ‘বৃষ্টির অপেক্ষায়’। অন্যটি ‘বাস স্টপে কেউ নেই’।

এর আগে প্রিয়াঙ্কার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে ‘বাম বাম বোলে বোল রাহা হ্যায় কাশি’ (ভোজপুরি), ‘ভেন্টিলেটর’ (মারাঠি) এবং ‘সারভান’ (পাঞ্জাবি) ছবি মুক্তি পেয়েছে। এ ছাড়া ‘কায় রে রাসকালা’ (মারাঠি) ছবিটির কাজ চলছে।