আমার কোনো স্ক্যান্ডাল নেই : নুসরাত ফারিয়া

ঢাকাই চলচ্চিত্রের এ প্রজন্মের চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘আশিকী’ শিরোনামের সিনেমায় কাজ করে নায়িকা খ্যাতি পান তিনি।

নতুন বছরের পরিকল্পনা প্রসঙ্গে নুসরাত ফারিয়া বলেন, ‘নতুন বছর অল্প কাজ করব কিন্তু ভালো কাজ করব। যে কাজগুলো হাতে নিবো যাতে সে কাজগুলো সুন্দরভাবে শেষ করতে পারি এটাই আমার নতুন বছরের টার্গেট।’

২০১৬ সালে আপনার ব্যর্থতা বলতে কিছু ছিল কি? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘২০১৬ সালের ব্যর্থতা যদি বলেন তাহলে বলব, আমার কোনো স্ক্যান্ডাল নেই। যদি জিজ্ঞেস করা হয়, কে কত হিট তা হলে দেখা গেছে, যার যত বেশি স্ক্যান্ডাল সে তত হিট। স্ক্যান্ডালের উপর বিচার করা হয়, কাজের উপর নয়। আর আমার সিনেমা অনেক ভালো ব্যবসা করেছে। এক কথায় ঘরে টাকা এসেছে।’

‘আশিকী’ সিনেমার পর নুসরাত যৌথ প্রযোজনার ‘হিরো ৪২০’ সিনেমায় কাজ করেন। সৈকত নাসির পরিচালিত এ সিনেমাটি ২০১৬ সালে মুক্তি পায়। এছাড়া গত ঈদুল ফিতরে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘বাদশা’ সিনেমায় জিতের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি। সিনেমাটি ভারত-বাংলাদেশ যৌথভাবে নির্মাণ করে।

Advertisements

প্রকাশ হল বাংলাদেশের ফেলুদা সিনেমার ফার্স্ট লুক (ভিডিও লিংক সহ)

ফেলুদা ভক্তদের জন্য সুখবর। সত্যজিৎ রায়ের ‘ফেলুদা’ গল্প অবলম্বনে প্রথম বারের মত বাংলাদেশে নির্মিত হতে যাওয়া সিনেমার প্রধান আকর্ষণ ফেলুদাকে দেখার অপেক্ষার অবসান হল। ভয়ংকর এক খুনের তদন্ত করতে গিয়ে ক্যামেরা বন্দী হলেন ফেলুদা।

বছরের প্রথম দিন নাহিদ হাসানের পরিচালনায় “শহর ব্যাপী খুন খারাপি” সিনেমার ফার্স্ট লুক দি ক্রিয়েটর’স ফিল্মস এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হয়েছে। সিনেমাটিতে নিঝুম ফারুকীকে বিখ্যাত গোয়েন্দা চরিত্র ফেলুদার ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যাবে।

 

“শহর ব্যাপী খুন খারাপি” সিনেমার ফার্স্ট লুক দেখতে লিংকে চাপুনঃ

Shohor Baypi Khun Kharapi | First Look | Feluda | Directed By Nahid Hasan

মেয়ের কারণে ফিরেছি, মাসে দুটি করে ছবি বানাব : ডিপজল

‘আমি নানা কারণে সিনেমা থেকে দূরে ছিলাম। কিন্তু আমার মেয়ে ওলিজা ও চলচ্চিত্রের অনেক কাছের মানুষদের উৎসাহে আবারো ফিল্মে এসেছি।

এখন থেকে নিয়মিত কাজ করবো। প্রতি মাসে দুটি করে ছবি বানাব। ‘

শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকার অদূরে সাভারে ডিপজলের শুটিং বাড়িতে নিজের প্রযোজিত দেশের হরর ছবি ‘মেঘলা’ ও ‘এককোটি টাকা’র মহরত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন অভিনেতা ডিপজল। ছবিগুলো পরিচালনা করবেন যথাক্রমে ডিপজল কন্যা ওলিজা ও ছটকু আহমেদ।

‘যেসব হলে ডিজিটাল ছবি দেখানো হচ্ছে সেখানে হল মালিক ও প্রযোজকের অনেক টাকা ব্যয় হয়ে যায় প্রজেক্টর ভাড়া করে। আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই সমস্যা দূর করতে কিছু কাজ করব। প্রাথমিকভাবে ১৫০টি সিনেমা হলে ডিজিটাল মেশিন বসাব। আপনারা সবাই পাশে থাকলে ধীরে ধীরে বাকি হলগুলোতেও মেশিন দেওয়া হবে। ‘ প্রতিটি মেশিনের জন্য খরচ পড়বে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা। খুব শিগগিরই এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ব্যবস্থা নেবেন ডিপজল।

ডিপজল বলেন, এখন ইন্ডাস্ট্রিতে অভিভাবক বলতে কিছু নেই। যে যার মতো আসছে, কাজ করছে, ব্যবসা করে চলে যাচ্ছে। দায়বোধ, শ্রদ্ধাবোধ কিছু নেই। নানা কারণে তারকাদের বিরুদ্ধে অনেক কথা শুনে কষ্ট পাই। যত বড় তারকাই হোক বেয়াদবি করা ঠিক না।

দেহের ভাষা বুঝতে চান? ৭ ভঙ্গি চিনে নিন

১. আড়াআড়ি হাত ও পায়ের সংকেত
আপনি কাউকে কিছু বলছেন। কিন্তু শ্রোতা তার দুই হাত বা দুই পা আড়াআড়ি ভঙ্গিতে রেখেছে।

এ থেকে বুঝতে হবে, সে মনোযোগ দিয়ে আপনার কথা শুনছে না। এমনকি এ অবস্থায় শ্রোতার হাসিমুখও দেখা যেতে পারে। কিন্তু আসল ভাষা তার অঙ্গভঙ্গিতে প্রতিফলিত হচ্ছে।
২. হাসির সংকেত
যখন কেউ হাসছে, তখন মুখ প্রতারণা করতে পারে, কিন্তু চোখ পারে না। আন্তরিক হাসির তরঙ্গ ছড়ায় চোখ পর্যন্ত। গবেষণায় বিজ্ঞানীরা বলেন, কেউ আপনার দিকে তাকিয়ে হাসল। এই হাসিতে যদি তার দুই চোখের কোনা কুঞ্চিত হয়ে ওঠে, তবে স্পষ্ট হবে যে, হাসিটা সত্যিকারের। আর হাসিটা শুধু ঠোঁটকেন্দ্রিক হলে উল্টোটা বুঝতে হবে।
৩. কেউ আপনার অঙ্গভঙ্গি নকল করলে
এটা ইতিবাচক অর্থ প্রকাশ করে। ধরুন, আলাপকালে আপনি দুই হাত পকেটে রাখলেন, শ্রোতাও তাই করল। এমনটা ঘটলে বুঝতে হবে, শ্রোতা অবচেতনভাবে আপনার প্রতি গভীর বন্ধন অনুভব করছে।
৪. অঙ্গবিন্যাস গল্পটা বলে দেয়
ধরুন, কোনো অফিসের মধ্যে একজন হেঁটে এলেন এবং আপনি বুঝে ফেললেন তিনি হর্তাকর্তা। এর অর্থ হলো, যে ব্যক্তিটি কক্ষে ঢুকলেন, তাঁর অঙ্গবিন্যাস বলে দিচ্ছে, তিনি ক্ষমতাবান কেউ।
৫. যে চোখ মিথ্যা বলে
আমার চোখের দিকে তাকিয়ে বলো—এমন কথা প্রায়ই শোনা যায়। এর মানে হলো, মিথ্যা বলার সময় মানুষের চোখের ভঙ্গি বদলে যায়। কারো চোখে চোখ রেখে অবলীলায় মিথ্যা বলাটা খুব কঠিন।
৬. ভ্রুর ভাষা
মানুষের ভ্রু ওপরের দিকে উঠতে পারে তিন কারণে—অবাক হলে, দুশ্চিন্তা ভর করলে এবং ভীতিকর অবস্থায় পড়লে। কিন্তু পরিচিত মানুষের সঙ্গে বন্ধুসুলভ আলাপের সময় এমনটা হলে এর অর্থ হলো, সে স্বস্তিবোধ করছে না।
৭. চোয়াল যখন শক্ত
কেউ দাঁত চেপে রয়েছে বা চোয়ালগুলো শক্ত করে রয়েছে। এর অর্থ সে মানসিক চাপে জর্জরিত।

বিচ্ছেদের জন্য মালাইকার দশ কোটি রুপি দাবি

দীর্ঘদিন ধরে আলাদা থাকলেও এবার আইনি প্রক্রিয়ায় বিয়ে বিচ্ছেদের পথে এগোচ্ছেন বলিউড অভিনেত্রী মালাইকা অরোরা ও সালমান খানের ভাই আরবাজ খান। সম্প্রতি বিচ্ছেদের জন্য বান্দ্রা পারিবারিক আদালতে আবেদন করেছেন বলে জানা গেছে। আইনি প্রক্রিয়ায় এ বিচ্ছেদের জন্য আরবাজের কাছে ১০ কোটি রুপি চেয়েছেন মালাইকা।

এ পরিমাণ অর্থ দেয়া না হলে মালাইকা মীমাংসায় পৌঁছাতে রাজি নন বলেই জানা গেছে। সাবেক স্ত্রীর এ দাবিতে বেশ হতভম্ব হয়ে পড়েছেন আরবাজ। তবে বিচ্ছেদের জন্য ১০ কোটি রুপি দিতেও রাজি হয়েছেন তিনি। নিজেদের ১৪ বছর বয়সী পুত্র আরহানের ভরণপোষণের জন্য এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেই জানিয়েছেন আরবাজ। তাই সব ঠিক থাকলে ২০১৭ সালের মে মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে বিচ্ছেদ হয়ে যেতে পারে মালাইকা ও আরবাজের।

নাটক আর ছবি দুই মাধ্যমেই নিয়মিত দেখা যাবে আমাকে

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী নওশীন। ব্যবসা আর সংসার সামলানোর পাশাপাশি অভিনয়ে সরব তিনি। সম্প্রতি চিত্রনায়িকা হিসেবেও অভিষেক হল তার। এখন প্রেক্ষাগৃহে চলছে তার অভিনীত ছবি ‘মুখোশ মানুষ : দ্য ফোইক’। চিত্রনায়িকা হওয়ার অনুভূতি ও কাজের নানা ব্যস্ততা নিয়ে আজকের ‘হ্যালো…’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

*ছিলেন আরজে। এরপর হলেন টিভি অভিনেত্রী। এখন চিত্রনায়িকা। কেমন লাগছে বিষয়টি?

**এক কথায় দারুণ। শোবিজের তিন মাধ্যমের কাজ নিয়েই অভিজ্ঞতা হচ্ছে। পাশাপাশি বিষয়টি উপভোগও করছি।

*‘মুখোশ মানুষ’ কী প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দর্শকদের সঙ্গে দেখেছেন?

**মুক্তির প্রথম দিন রাজধানীর বেশ কয়েকটি প্রেক্ষাগৃহে গিয়েছি। আজও যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। দর্শকদের সঙ্গে ছবিটি নিয়ে কথা বলছি। তাদের ভালো লাগা মন্দ লাগাগুলো নোট করছি। তাদের সঙ্গে মিশে নতুন অভিজ্ঞতা হচ্ছে।

*সিনেমায় এখন থেকে নিয়মিত হবেন?

**চাকরি ও সংসার সামলে নিয়মিতই অভিনয় করছি। তবে সেটা নাটকে। আসলে অভিনয়ের ওপর দৃষ্টি রয়েছে। সেটা হোক নাটক কিংবা ছবি। ভালো চরিত্র আর গল্প হলে নাটক আর ছবি দুই মাধ্যমেই নিয়মিত দেখা যাবে আমাকে।

*হিল্লোলের সঙ্গে সংসার জীবন কেমন চলছে?

**সবার দোয়ায় বেশ ভালোই চলছে আমাদের সংসার। ব্যবসা এবং অভিনয়ের ব্যস্ততার বাইরেও আমরা সংসারটাকে গুছিয়ে নিয়েছি। আশা করি আমৃত্যু এভাবে ভালো থেকেই কাটিয়ে দিতে পারব।

*স্বামী নয়, অভিনেতা হিল্লোলকে আপনার কেমন লাগে?

**একজন অভিনেতা হিসেবে হিল্লোল সত্যিই অনেক ভালো। অভিনয়ের প্রতি তার দায়িত্বশীলতা সত্যিই আমাকে মুগ্ধ করে। আমি আগে থেকেই হিল্লোলের অভিনয় দেখি। পর্দায় তার ব্যক্তিত্বটা দারুণ উপভোগ করি। বাস্তবেও সে অনেক ব্যক্তিত্ববান পুরুষ।

*উপস্থাপনাতে আগের মতো দেখা যাচ্ছে না…

**উপস্থাপনায় আগের মতোই আছি। তবে হুটহাট করে যেনতেন অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করছি না। আগে বুঝেশুনে বিশেষ কিছু অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছি। মানের দিক থেকে কোনো আপস করছি না বলে অনেক অনুষ্ঠানই ছেড়ে দিতে হচ্ছে।

*উপস্থাপনা বা অভিনয়ে তরুণ শিল্পীদের কাজ কেমন লাগে আপনার?

**তরুণদের মধ্যে অনেকেই ভালো করছেন। তরুণ অভিনেত্রী হিসেবে অনেকের কাজই আমার দারুণ ভালো লাগে। তালিকা করলে বিশাল হয়ে যাবে। তাই নামগুলো বলতে পারছি না। তবে এখন যারা মিডিয়া অঙ্গনে কাজের জন্য আসছেন তাদের মধ্যে অনেকেই মেধাবী। তাদের প্রোপার গাইড করতে পারলে ভবিষ্যতে শোবিজ অঙ্গনে ভালো কিছু আর্টিস্ট তৈরি হবে বলে আমি মনে করি।

হঠাৎ অবসাদ না চাইলে ৭ টিপস মেনে চলুন

হঠাৎ কোনো কারণ ছাড়াই ক্লান্ত হয়ে যাওয়া কিংবা হঠাৎ করে মারাত্মক অবসাদে আক্রান্ত হতে পারেন যে কেউ। নানা ধরনের শারীরিক ও মানসিক কারণে এমনটি হতে পারে।

তবে কয়েকটি পদক্ষেপের মাধ্যমে এ বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।
১. শারীরিক অনুশীলন
হঠাৎ অবসাদের কারণ হতে পারে শারীরিক। এক্ষেত্রে রক্তের শর্করার মাত্রা ওঠানামাতেও এমনটি হয়। আর এর পেছনে থাকতে পারে থাইরয়েড গ্রন্থির কার্যক্ষমতা হ্রাস, অ্যানেমিয়া ও রিউম্যাথয়েড আর্থ্রাইটিস। নিয়মিত শারীরিক অনুশীলনে হৃৎস্পন্দন সঠিক মাত্রায় থাকবে। এতে পর্যাপ্ত অক্সিজেনসমৃদ্ধ রক্ত মস্তিষ্ক ও মাংসপেশিতে যাবে। ফলে হঠাৎ ক্লান্তিভাবও আসবে না।
২. পর্যাপ্ত ঘুম
প্রতিদিন পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে হঠাৎ করে ক্লান্তিভাব তৈরি হতে পারে। আর এ সমস্যা কাটানোর জন্য নিয়মিত সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমানো প্রয়োজন। এছাড়া ঘুমের মান যেন ঠিক থাকে সেজন্যও মনোযোগী হওয়া প্রয়োজন। এক্ষেত্রে ঘুমানোর জন্য উপযুক্ত ও আরামদায়ক পরিবেশ প্রয়োজন।
৩. গ্যাজেট সাবধান
স্মার্টফোন, ট্যাবলেট, ল্যাপটপ, কম্পিউটার মনিটর ও টিভির মতো ডিভাইস চোখের সামনে সর্বদা ধরে থাকলে তা থেকে নীল আলো বিচ্ছুরিত হয় এবং তা দেহের মেলাটোনিনের মাত্রায় তারতম্য ঘটায়। এ হরমোনটি দেহেরে ঘুম ও জেগে থাকার চক্র নিয়ন্ত্রণ করে। হরমোনটির মাত্রায় পার্থক্য হলে তা ঘুমের সমস্যা যেমন তৈরি করে তেমন মানুষকে ক্লান্তও করে তোলে। আর এ সমস্যা দূর করতে সব সময় স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকা ত্যাগ করতে হবে।
৪. প্যাকেটজাত নয়, তাজা খাবার খান
প্যাকেটজাত খাবার দীর্ঘদিন তাজা রাখতে নানা ধরনের রাসায়নিক ব্যবহৃত হয়। এছাড়া বাড়তি স্বাদ ও গন্ধের জন্যও এসবের মধ্যে নানা কৃত্রিম উপাদান ব্যবহৃত হয়। এসব রাসায়নিক মানুষের দেহের বিভিন্ন ধরনের হরমোনের ভারসাম্যহীনতা তৈরি করে। অন্যদিকে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত তাজা ফলমূল ও খাবারে সাধারণত এ সমস্যা থাকে না। তাই সুস্থ থাকার জন্য সর্বদা তাজা ফলমূল ও বাড়িতে তৈরি খাবার খাওয়া উচিত।
৫. পর্যাপ্ত পানি পান করুন
ক্লান্তি এড়াতে আপনার দেহের পানির তৃষ্ণা থাকুক আর না থাকুক, পানি পান করতে হবে। শীতকালে কিংবা সারাদিন নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে বসে কাজ করলে অনেকেরই পানির জন্য তৃষ্ণা নাও পেতে পারে। কিন্তু এ সময় পানি পান করা দেহের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।
৬. সঙ্গীত
সঙ্গীতের সুর মস্তিষ্ককে উদ্দীপ্ত করে। এছাড়া এটি একঘেয়েমিও দূর করে। এ কারণে নিজের পছন্দমতো সঙ্গীত শুনলে তা ক্লান্তি দূর করতে ভূমিকা রাখে।
৭. সামাজিকতা
আপনার বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স্বজন ও পরিচিতদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখুন। তাদের সঙ্গে সর্বদা সম্পর্ক বজায় রাখুন ও ভালো-মন্দ বিষয়ে মতামত নিন ও দিন। এতে আপনার সামাজিক সম্পর্ক জোরদার হবে এবং মনও ভালো থাকবে। ফলে হঠাৎ করে অবসাদজনিত ক্লান্তি থেকে দূরে থাকা সম্ভব হবে।

এবার হিন্দিতে হেমলক সোসাইটি!‌

সৃজিত মুখার্জির প্রিয় ছবি কী?‌ অটোগ্রাফ থেকে চতুষ্কোন, বাইশে শ্রাবণ থেকে রাজকাহিনী, জাতিস্মর থেকে জুলফিকর। এমন অনেক নামই উঠে আসতে পারে।

কিন্তু মানুষের কাছে হেমলক সোসাইটির আবেদন অন্যরকম। এমনটাই মনে করেন পরিচালক। হেমলক সোসাইটি মানুষকে নতুন করে বাঁচার প্রেরণা জোগায়, এমন বার্তাই বারবার পেয়েছেন সৃজিত।
এবার সেই হেমলক সোসাইটির রিমেক হতে চলেছে। সৃজিত এখন ব্যস্ত বেগমজান (‌রাজকাহিনীর হিন্দি রিমেক)‌ নিয়ে। তারপরেই নাকি হেমলক সোসাইটির রিমেক হতে পারে। টলিউড সূত্রে এমনই খবর। সৃজিত নিজেও বলছেন, আমার কোনও ছবি যদি জীবনের প্রতি ভালবাসা তৈরি করে, তা হল হেমলক সোসাইটি। ’‌ একজন চিঠি লিখেছিলেন। একজন ফোন করেছিলেন। দুজনেরই এক কথা, আত্মহত্যা করার কথা ভেবেছিলাম। কিন্তু হেমলক সোসাইটি দেখার পর ভাবনা বদলাই। নতুন করে বাঁচতে শিখি।
ভাবনাটি বেশ অভিনব। সিনেমাপ্রেমীরা মনে করেন, হেমলকের বিষয়টি বেশ অভিনব। কৌতুক আছে। তার মোড়কেই রয়েছে জীবনবোধ। এমন বিষয় নিয়ে হিন্দিতে ছবি হলে তা সাড়া ফেলতে পারে। নতুন বছরে কাকাবাবু সিরিজের ছবি করার কথা। তারপরই কি তবে হেমলক সোসাইটি ?‌ আপাতত সেই অপেক্ষাতেই থাকা যাক।

বিয়ে করে হৃত্বিককে ভুলতে চান কঙ্গনা!

হৃত্বিক ইস্যুতে কম জল ঘোলা হয়নি। শেষ পর্যন্ত সব ভুলে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলিউডের অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। আর সেটি ২০১৭ সালেই।

কঙ্গনা এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে নাকি এমনটাই জানিয়েছেন!

তবে কার সঙ্গে নায়িকা গাঁটছড়া বাঁধছেন, সেটি গোপন করেছেন তিনি। মিষ্টি হেসেই এড়িয়ে গিয়েছেন পাত্রের নাম।

হৃত্বিক রোশনের সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি হয়েছে বিস্তর। সেই কারণে প্রায় গোটা বছরজুড়েই মানসিক অশান্তিতে কাটিয়েছেন কঙ্গনা।

কিছুদিন আগেই হৃত্বিকের সঙ্গে তার আইনি ঝামেলা মিটেছে। এখন দেখার, হৃত্বিকের আসনে কাকে আনেন কঙ্গনা!